কুষ্টিয়ায় ক্রিকেট খেলা নিয়ে সংঘর্ষে দুই ভাই নিহত

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পাহাড়পুর গ্রামে ছোটদের ক্রিকেট খেলা নিয়ে বিরোধে সংঘর্ষে আপন দুই ভাই নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে এঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, বকুল আলী (৫৫) নেহাদ আলী (৬০)। তারা পাহাড়পুর গ্রামের চাঁদ আলীর ছেলে। এ ঘটনায় কমপক্ষে ৫জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লাশ একই হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

স্থানীয় বাঁধ বাজার পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই রাশেদ জানান, সোমবার বিকেলে দক্ষিণ পাহাড়পুর গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে রাজুর সাথে একই গ্রামের বাবুল শেখের ছেলে ইসতাক আহম্মেদ ও উল্লাস এবং মোক্তার আলীর ছেলে নাহিদের ক্রিকেট খেলা নিয়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর সূত্র ধরে ইসতাক আহম্মেদ তার ছোট ভাই উল্লাস এবং নাহিদকে আটক করে বাঁধ বাজার ক্যাম্পে নিয়ে আসা হয়। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে দুই পক্ষের অভিভাবকদের উপস্থিতিতে আটককৃত তিনজনকে তাদের অভিভাবকদের কাছে ছেড়ে দেয়া হয়। পরে তারা গ্রামে ফিরে গন্ডগোলে জড়ায়।

পরে নেহাদ আলী ও বকুল আলী বাধবাজার থেকে বাজার করে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার পথে পাহাড়পুর গ্রামের বানু মন্ডলের বাড়ির কাছে পৌছালে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা ১০/১২ জন ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাদের হামলা চালায়। কুপিয়ে তাদের আহত করে। এসময় উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে বিষয়টি জানাজানি হলে তারা ব্যাপক সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে আরও ৫জন আহত হয়।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা তাপস কুমার সরকার,‘ বকুল ও নেহাত নামের দুই ব্যক্তিকে রাতে হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে আসা হয়। তাদের সারা শরীরে কোপানোর চিহ্ন আছে। হাসপাতালে আসার আগে এ দুইজন মারা যায়।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ক্রিকেট খেলা নিয়ে সোমবার স্থানীয় দুই পক্ষের মধ্যে ঝামেলা হয়। এরপর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে আপন দুই ভাই নিহত হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের খুঁজে বর করার চেষ্টা হচ্ছে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *