মুদি দোকানে বসতে নিশেধ করায় রণক্ষেত্র

করোনার সংক্রমণ এড়াতে মুদি দোকানে বসে আড্ডা দিতে নিষেধ করা হয়েছিল এক যুবককে। বিষয়টি মানহানিকর মনে করে তখন প্রচণ্ড গালাগাল করা হয় ওই মুদি দোকানীকে। এখানেই শেষ নয়; পরে রীতিমত গ্যাং সহ রাম দা, শাবল, লোহার রড, লাঠিসোটা নিয়ে বাড়িতে হাজির হয়ে দেদারে পেটানো হয় ওই দোকানীকে। বাদ যায়নি নারীও। এ হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

গতকাল বুধবার (১ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ছনকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী নারীসহ আহতদের উদ্ধার করে সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়েছেন।

হাসপাতালে যারা ভর্তি আছেন তারা হলেন- সালমান শাহ (২৫), মো. আকাশ হোসেন (১৮) ও তুষ্ট বেগম (৪৫)।

আরও পড়ুন: হাতীবান্ধায় কর্মহীনদের মধ্যে সরকারের ত্রাণ

মলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার উত্তর ছনকা গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেনের ছেলে সালমান শাহ উত্তর ছনকা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে মুদি দোকান করেন। করোনা সংক্রমণ এড়াতে একই গ্রামের মো. মতিন হোসেনের ছেলে মো. মনির হোসেনকে দোকানের সামনে বসতে নিষেধ করলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে গালাগাল করেন। এক পর্যায়ে মনির হোসেন, রবিন, শাখিল, মোজাহার, সজিব ও মাজেদুল মিলে সালমান শাহর বাড়িতে গিয়ে রাম দা শাবল, লোহার রড় ও লাঠি দিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়।

এ ব্যাপারে সাটুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মো. মতিয়ার রহমান মিঞা জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *