বার্সেলোনা, লিভারপুল আর পিএসজিই চ্যাম্পিয়ন?

বেলজিয়ান ফুটবল লিগ আর অপেক্ষা করতে পারল না। জুনের মধ্যে লিগ শেষ করার কোনো উপায় না দেখে এর মাঝেই লিগ চ্যাম্পিয়নের নাম ঘোষণা করে দিয়েছে। উয়েফা কয়েক দিন আগে আগস্টের মধ্যে লিগ শেষ করে দেওয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ করেছিল। বেলজিয়াম হয়তো এতেই অনুপ্রাণিত হয়েছে।

এদিকে বেলজিয়ামের এমন তাড়াহুড়া দেখে উয়েফাই অন্য সব লিগকে বলছে এভাবে লিগ চ্যাম্পিয়ন যেন ঘোষণা না করা হয়।। কারণ উয়েফার দুটি প্রতিযোগিতায় কারা অংশ নেবে সেটি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বাছাই করতে হয়। লিগের শেষ পর্যায়ে অনেক নাটকীয় কিছু ঘটে। তারপরই জানা যায় কারা যাচ্ছে পরের চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ইউরোপা লিগে। তাই অন্য কোনো উপায় ভেবে দেখার চিন্তা ভাবনা সংস্থাটি করছে বলে জানিয়েছে।

ইউরোপের বর্তমান পরিস্থিতি দেখে অবশ্য উয়েফাকে পৃথিবীর সবচেয়ে আশাবাদীদের মধ্যেই ধরা যায়। করোনা এমন পরিস্থিতিতে পৌঁছেছে যে, সবকিছু স্বাভাবিক করে এ মৌসুমে আর ফুটবল মাঠে ফেরানো প্রায় অসম্ভব। এ অবস্থায় ইউরোপের বাকি লিগগুলোও বেলজিয়ামের পথ ধরতে পারে। অর্থাৎ, লিগের পয়েন্ট তালিকায় যারা শীর্ষে আছে তাদের চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে দেওয়া। সে ক্ষেত্রে কারা জিতবে ঘরোয়া লিগ গুলো?

স্পেন

বার্সেলোনা। এবারের উত্থান-পতনের লা লিগায় শেষ মুহূর্তে আবারও এগিয়ে গেছে কাতালানরা। করোনার কারণে থেমে যাওয়ার আগের সপ্তাহেও রিয়াল ১ পয়েন্টে এগিয়ে ছিল। ঘরের মাঠে রিয়াল সোসিয়েদাদকে হারায় বার্সেলোনা, ওদিকে রিয়াল বেতিসের কাছে হারে রিয়াল। তাতেই ২ পয়েন্টে এগিয়ে গেছে বার্সা। এই এক রাউন্ডই সীমানা নিষ্পত্তি করে দিতে পারে এখন।

ইংল্যান্ড

লিভারপুল। শুধু দুটি ক্লাব ছাড়া বাকিরা মেনেই নিয়েছে লিভারপুলকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে দেওয়া হোক। ২৫ পয়েন্ট এগিয়ে থাকা লিভারপুলকে প্রথম প্রিমিয়ার জেতা থেকে আটকাতেই হয়তো এ মৌসুম বাতিলের প্রস্তাব দিয়েছেন ওয়েস্টহাম ইউনাইটেডের সহ-সভাপতি।

জার্মানি

বায়ার্ন মিউনিখ। এ মৌসুমের একপর্যায়ে চার-পাঁচটি ক্লাব বায়ার্নের চেয়ে পয়েন্টে এগিয়ে ছিল। কিন্তু মৌসুমের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ঠিকই নিজেদের ফিরে পেয়েছে জার্মানে একক রাজত্ব কায়েম করা দলটি।

ফ্রান্স

পিএসজি। এ মৌসুমেও প্রতিপক্ষ দলগুলোর চেয়ে যোজন যোজন এগিয়ে আছে নেইমার-এমাবাপ্পের দল। এক ম্যাচ কম খেলেই ১২ পয়েন্টে এগিয়ে তারা।

ইতালি
জুভেন্টাস। এ মৌসুমে জুভেন্টাসের হাত থেকে শিরোপা কেড়ে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছিল ইন্টার মিলান। কিন্তু দৌড়ে অনেকটাই ছিটকে গেছে তারা। সে তুলনায় অনেকটা আড়ালে থেকেই গোলবন্যা বইয়ে দেওয়া লাৎসিও মাত্র ১ পয়েন্টের জন্য জুভেন্টাসের সম্পত্তি হয়ে যাওয়া ট্রফিটা নিতে পারছে না।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *