করোনা বিষয়ে সতর্ক করায় ইউপি সদস্যকে পিটিয়ে জখম

টাঙ্গেইলের নাগরপুরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সরকারি নির্দেশনা মোতবেক সতর্কতা মেনে চলতে বলায় এক ইউপি সদস্যকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার রাত ৮টার দিকে টাঙ্গাইলের নাগরপুরে দপ্তিয়র ইউনিয়নের ফয়েজপুর গ্রামে কাঠবাগান বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো গণজমায়েত, নিদির্ষ্ট সময়ে দোকানপাট বন্ধ এবং সামাজিক দুরত্ব বজায় না রেখে মাস্কবিহীন চলাচল নিষেধ করছিলেন উপজেলার ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের আহত ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন (৫৭)।

বিষয়টি কয়েকজন মোটরসাইকেলচালকসহ কিছু আইন অমান্যকারীর কাছে মানহানিকর মনে হয়। তখন তারা প্রচণ্ড গালাগাল করেন ওই ইউপি সদস্যকে। এখানেই শেষ নয়; বিষয়টি শালিসী পর্যন্ত গড়ায়। শালিসী সভায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হাজির হন তারা। এক পর্যায়ে তারা ওই ইউপি সদস্যকে বেধড়ক পেটান।

ওই ইউপি সদস্য মারাত্মকভাবে আহত হলে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার সরকারি নির্দেশ না মেনে অনিরাপদভাবে রাস্তায় চলাচল, গণজমায়েত করলে তাদের করোনা প্রতিরোধমূলক সরঞ্জাম ব্যবহার করে রাস্তায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সরকারি নির্দেশানুসারে চলতে বলায় তারা ক্ষিপ্ত হন। এ নিয়ে শালিসী সভার আয়োজন করে সেখানেই ইউনিয়নের অভিযুক্ত নিশ্চিন্তপুর গ্রামের বুইথা মোল্লার ছেলে শাহজাহান (৫৫), সুমন মিয়া (৪৫) এবং অজ্ঞাত আনুমানিক ১০-১২ জন মিলে ওই ইউপি সদস্যকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেন।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান এম. ফিরোজ সিদ্দিকী বলেন, পাশের গ্রামের কিছু লোক মাস্কবিহীন মোটর সাইকেল নিয়ে চলাচল করায় তাদের থামিয়ে ইউপি সদস্য করোনা প্রতিরোধের বিষয়টি বোঝানোর চেষ্টা করায় তর্ক-বিতর্ক হয়। তাদের উশৃঙ্খল ব্যবহারে শালিসী বৈঠকে দুষ্কৃতিমনা ব্যক্তিরা ইউপি সদস্যকে মারধর করেন বলে জানতে পেরেছি।

নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলম চাঁদ জানান, এ বিষয়ে থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই প্রতিবেদনে প্রকাশিত মতামত সম্পূর্ণভাবে লেখকের, এটি অপেরা নিউজের মতামতকে প্রতিফলিত করে না

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *