করোনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে ছাত্রী

সারা বিশ্ব যখন করোনা ভাইরাসে আতংকিত, ঠিক তখনই ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হলিধানী ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামে জাহিদ (১৮) নামে এক ছেলের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে তিন দিন ধরে অনশন করছেন টুম্পা (১৬) নামে এক মেয়ে। এ ঘটনায় গোটা গ্রামে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। অবস্থা বেগতিক দেখে জাহিদ বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে।

প্রেমিক জাহিদ ওই গ্রামের শাজাহান মালিতার ছেলে।

গ্রামবাসি জানায়, জাহিদ ঝিনাইদহ শহরে ইজিবাইক চালায়। সেই সূত্র ধরে তার সাথে ঝিনাইদহ খাজুরা গ্রামের শহিদ মিয়ার মেয়ে টুম্পার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এখন বিয়ের দাবিতে গত তিন ধরে এই মেয়ে জাহিদ এর বাড়িতে অনশন করছে।

প্রেমিকা টুম্পা বলেন, সে ঝিনাইদহ মুক্তিযোদ্ধা মশিউর রহমান বালিকা বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। জাহিদ এর সাথে তার শহরে পরিচয় হয়,নধীরে ধীরে তারা গভীর সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। সম্পর্কের খাতিরে জাহিদ তাকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিক বার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। এর কিছু দিন পর সে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় ও বিভিন্ন ভাবে টালবাহানা করে। তাই কোন উপায় না পেয়ে বিয়ের দাবিতে তার বাড়িতে উঠেছেন।

জাহিদ এর পিতা শাজাহান মালিতা শুক্রবার সকালে জানান, মেয়েটি আমাদের বাড়িতে আসার পর বুঝিয়ে শুনিয়ে গতকাল তার বাপ মার হাতে তুলে দিয়ে আসি, কিন্তু সে আবার আমাদের বাড়িতে ফিরে এসেছে। আমার ছেলে বাড়ি থেকে কোথায় পালিয়ে গেছে। এখন আমার কি করার আছে?

ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবি জানান, ছেলে পালিয়েছে। দু জনেই ছোট তাই মেয়েকে তার বাসায় ফিরত পাঠানোর জন্য চেষ্টা করছি।

এ বিষয়ে কাতলামারি পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ আনিচুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি যেহেতু ছেলে মেয়ে দুজনেই অপ্রাপ্তবয়স্ক সেহেতু এটা পারিবারিক ভাবে সুরাহা করার কথা বলেছি।

এই প্রতিবেদনে প্রকাশিত মতামত সম্পূর্ণভাবে লেখকের, এটি অপেরা নিউজের মতামতকে প্রতিফলিত করে না

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *