মসজিদ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন- পাকিস্তানের মুফতী তক্বী উসমানী।

১৪ই এপ্রিল,২০২০

আল্লামা মুফতি তাকি উসমানী সহ পাকিস্তানের উলামায়ে কেরামগণ ।

দ্যা ভয়েস অফ ঢাকা প্রতিবেন ডেস্ক- করোনাভাইরাসের প্রকোপে লকডাউন হওয়া পাকিস্তানে আজ থেকে মসজিদ খুলে দেওয়া হবে।

মসজিদে নিয়মিত জীবানুনাশক স্প্রে ও যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং মুসুল্লিদের তুলনামূলক দূরত্বে দাড়ানো হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) করাচী প্রেসক্লাবে এ ঘোষণা দেন মুফতী তক্বী উসমানী ও পাকিস্তানের চাঁদ দেখা কমিটির চেয়ারম্যান মুফতী মুনিবুর রহমান।

এতে তক্বী উসমানী বলেন, করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে হলে আমাদের আল্লাহর দিকে ফিরতে হবে। তবে আমাদের যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। অসুস্থ ব্যক্তিরা যেনো মসজিদে না আসে। নফল ইত্যাদি নামাজ ঘরে আদায় করবে। জুম’আর নামাজে কোনো বয়ান হবেনা। এবং মসজিদে নিয়মিত জীবানুনাশক স্প্রে ব্যবহার করা হবে।

তিনি আরো বলেন, বাজার ও সুপারমার্কেট খোলা রাখা হয়েছে। সেখানেও যেনো সতর্কতামূলক দূরত্ব বজায় থাকে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জিওয়াই সিন্দের সেক্রেটারি জেনারেল আল্লামা রাশেদ মাহমুদ, মাওলানা আয়িস নুরানি, মুফতী ডা. আদেল, মাওলানা মুহাম্মাদ সালাফি, ডা. আসরার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও এতে টেলিফোনে সংযুক্ত হয়েছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের (এফ) সভাপতি মাওলানা ফজলুর রহমান, জামায়াতে ইসলামীর আমীর সিনেটর সিরাজুল হক ও সিনেটর সাজেদ মীর প্রমুখ।

আল্লামা তাকি উসমানি হাফিজাহুল্লার মসজিদ লকডাউন মুক্ত করনের দাবির পাশাপাশি মসজিদ কর্তৃপক্ষ ও মুসুল্লিদের জন্য যে আহব্বান করেছেন।

তার কিছু এখানে তুলে ধরলাম।

১. মসজিদে ঢোকার আগে ভাইরাস মুক্তকরন মেশিন বসাইতে হবে,
২. প্রতি তিন কাতারের মধ্যবর্তী কাতার বাদ দিয়ে দাড়াইতে হবে,
৩. কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নয় বরং সামাজিক ডিস্টেন্স মেনে দাঁড়াইতে হবে„অর্থাৎ একজন থেকে আরেক জন মুসুল্লির দুরত্ব তিন মিটার! হইতে হবে।
৪. বয়স্ক মুসুল্লিরা আপাতত মসজিদে গমম করবেনা।
৫.জুমায় খুতবার আগে বয়ান হবেনা
সুন্নত নফল আগের পরের সব ঘরে আদাই করতে হবে।
৬.খুতবা দোয়া দরুদ দিয়ে যত দ্রুত সম্ভব শেষ করা।
৭.ভাইরাসে আক্রান্তদের যাওয়াতো একেবারেই নিষেধ

এখন প্রশ্ন হলোএই রোগের আক্রান্ত ব্যক্তি নাকি প্রথম ১৫ দিন নিজেও জানেনা সে-যে এই মহামারীতে আক্রাত হতভাগা তার কি হুকুম?

এমম শর্তে যেকেউ যেতে পারবে কারন তার
জনামতে সে সুস্থ।
অথবা সবাইকে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে কারন তার ভাইরাস প্রকাশ্যে ধরা দেয় নাই, হয়তো সে আক্রান্ত!

একটু ভাবুন,আমি আমাকে সুস্থ মনে করেই গেলাম অথচ ৩০ জনকে আক্রান্ত করে আসলাম।

এবার বাজার বিরোধিরা রাগ করবেন,
শুনেন বাজার খোলা রাখতেই হবে, সামাজিক ডিস্টেন্সকে মেনে।

Karachi Media Talk | Ulama

براہ راست کراچی سے : کراچی پریس کلب میں حضرت شیخ الاسلام مفتی محمد تقی عثمانی صاحب تمام مکاتب فکر کے جید علماء کرام کے ہمراہ پریس کانفرنس سے خطاب فرما رہے ہیں۔#TeamJUISindh

Posted by Jamiat Ulama-e-Islam Pakistan on Tuesday, April 14, 2020

সূত্র- karachi media talk.

vod-14042020

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *