সেই ভিডিও সরিয়ে ফেলায় তরুণীর কাছে ক্ষমা চেয়েছে টিকটক

 

চীনে মুসলমানদের ওপর অত্যাচার নিয়ে সমালোচনা করা সেই ভাইরাল ভিডিওটি সাময়িক সময়ের জন্য মুছে ফেলায় বৃহস্পতিবার ব্যবহারকারীর কাছে ক্ষমা চেয়েছে টিকটক কর্তৃপক্ষ। অ্যাপ কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে সেটি মুছে ফেলার এক ঘণ্টার মধ্যে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।

কিন্তু এ সপ্তাহে টুইটারে ব্যবহারকারী ফিরোজা বলেন, এক মাসের জন্য টিকটকে পোস্ট দেয়া বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া বুধবারে তার ভাইরাল ভিডিও নামিয়ে ফেলা হয়েছে। পরে তা ফেরত দেয়া হয়েছে।

টিকটকের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ভিডিওটি ৫০ মিনিটের জন্য অফলাইনে ছিল।

টিকটকের মার্কিন নিরাপত্তা প্রধান এরিক হান বলেন, ত্রুটির জন্য আমরা আমাদের পক্ষ থেকে ব্যবহারকারীর কাছে ক্ষমা চাইতে চাই। মানুষের আচরণ পরিবর্তনের কারণে ২৩ নভেম্বর ভাইরাল টিকটক ভিডিওটি সরানো হয়েছে।

তিনি বলেন, এটা স্পষ্ট করা গুরুত্বপূর্ণ ভিডিওটি আমাদের কোনো নির্দেশিকা লঙ্ঘন করে না। এটি সরানো উচিত না।

তুর্কি গণমাধ্যম ইয়েনি শাফাকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভিডিওটি ১৬ লাখের বেশি দেখা হয়েছে। এটি নিয়ে বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা প্যানেলের তদন্তের মুখে পড়তে পারেন টিকটকের চীনা মালিক, বাইটডেন্স ও ফেসঅ্যাপ।

ভিডিওটি গত সপ্তাহে শেয়ার করা হয়েছিল। ব্যবহারকারী নিজেকে ফিরোজা আজিজ বলে পরিচয় দিয়েছেন। ভিডিওতে ১৭ বছরের ওই কিশোরী দর্শকদের দেখালেন কীভাবে তিনি আইল্যাশ কার্লার ব্যবহার করছেন। ভিডিওতে তিনি মুসলিমদের নির্যাতনের বিষয়ে সতর্কতা নিয়ে কথা বলেন।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *