এস এস সি’র ফল প্রকাশ মে মাসেই

করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যে আগামী মে মাসের শেষভাগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ডগুলো। এ লক্ষ্যে দেশের সব পরীক্ষকদের কাছে জমা থাকা পরীক্ষার উত্তরপত্র বিকল্প পন্থায় বোর্ড অফিসে পাঠাতে বলা হয়েছে। তবে এ বছর পরিবর্তিত পরিস্থিতির কারণে শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট ও শিক্ষার্থীদের মুঠোফোনে এই রেজাল্ট পৌছানোর চিন্তা করা হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার শিক্ষাবোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানদের মধ্যে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত সভায় এমন সিন্ধান্ত হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

 

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবারের ভার্চ্যুয়াল সভায় এসএসসি ও সমমানের ফলাফল প্রস্তুতির কাজ দ্রুত শেষ করতে দেশের সকল শিক্ষা বোর্ডগুলোতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মে মাসের মধ্যে এ ফলাফল প্রকাশ করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিশেষ জরুরী আজকের সভায় যুক্ত ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো: মাহবুব হোসেন। সভাটি পরিচালনা করেন ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুহাম্মদ জিয়াউল হক।

 

দেশের দুর্যোগের এই পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বড় পরিসরের পাবলিক পরীক্ষা তথা এসএসসি ও সমমানের এবারের ফলাফল প্রকাশে আগের রীতিনীতি অনুসরণ করা না হলেও এবার শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট ও এসএমএসের (ক্ষুদেবার্তা) মাধ্যমে এ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করার চিন্তা করা হচ্ছে। এজন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে শিক্ষার্থীদের মোবাইল নম্বরও সংগ্রহের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

 

এদিকে আগামী মে মাসের শেষভাগে বিশেষ করে ২০ থেকে ২৫ তারিখের মধ্যে টার্গেট করে সব ধরনের প্রস্তুতি নিতে বলে হয়েছে। সভায় এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশের লক্ষ্য নিয়ে দ্রুত ফলাফল তৈরির প্রস্তুতির কাজ শেষ করতে সকল শিক্ষা বোর্ডগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুহাম্মদ জিয়াউল হক। নয়া দিগন্ত’র এই প্রতিবেদককে তিনি আরো জানান, গণপরিবহন বন্ধ থাকায় আমরা পরীক্ষকদের কাছে থেকে উত্তরপত্র বা নম্বরপত্র সংগ্রহ করতে পারছি না। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ১৫ দিনের মধ্যেই যাতে রেজাল্ট প্রকাশ করা যায় সেই প্রস্তুতি আমরা নিয়ে রাখছি। ফলাফল প্রকাশের সাথে সংম্পৃক্ত বোর্ডের কাজ শতকরা ৭০ ভাগ এগিয়ে রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

তিনি জানান, মার্চের মধ্যে এ পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হলেও একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রমে সময় কমিয়ে দেড় মাসের বদলে এক মাসের মধ্যে শেষ করতে আমরা প্রস্তাব দিয়েছি। করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মাসব্যাপী বন্ধের কিছুটা ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এমন প্রস্তাব করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো: মাহবুব হোসেন এ বিষয়ে জানান, সকল শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক হয়েছে। এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল তৈরির কার্যক্রমের বিষয়ে তাদের (বোর্ড চেয়ারম্যানদের) কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে। ফল তৈরির অধিকাংশ কাজ শেষ হয়েছে বলে তারা জানিয়েছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরবর্তী দুই সপ্তাহের মধ্যে এসএসসি ও সমমানের ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *