মাকে খুন করে লাশের পাশে মেয়েকে ধর্ষণ।

২১শে এপ্রিল, মঙ্গলবার ,২০২০

খুনি ও ধর্ষক সামিউল ইসলাম সাগর, নওগাঁ ।

দ্যা ভয়েস অফ ঢাকা ক্রাইম প্রতিবেদন ডেস্কঃ নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার প্রসাদপুর ইউনিয়নে মাকে গলা কেটে হত্যার পর অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গভীররাতে নিহতের শয়ন কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই অভিযান চালিয়ে ধর্ষক সামিউল ইসলাম সাগরকে (২২) আটক করেছে মান্দা থানা পুলিশ।

সাগর উপজেলার কুসুম্বা ইউনিয়নের চকশ্যামরা গ্রামের বাসিন্দা। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের স্বামী জানান, তিনি নাটোরে একটি প্রতিষ্ঠানে নৈশপ্রহরীর চাকরি করেন। বাড়িতে স্ত্রী ও ছোট মেয়ে একসঙ্গে থাকতেন। তিনি এ ঘটনায় মান্দা থানায় হত্যা ও ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছেন।

মান্দা থানার ওসি মোজাফফর হোসেন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক সাগরের দেওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে জানান, নিহতের ছোট মেয়ের সঙ্গে সাগরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি সেই সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হলে সোমবার গভীররাতে প্রেমিকাকে হত্যার উদ্দেশ্যে একটি চাকু নিয়ে তাদের বাড়িতে যায় সাগর।

দরজা বন্ধ থাকায় বাড়ির পেছন দিয়ে ছাদে উঠে ঘরে ঢোকে সে। এ সময় মা-মেয়ে একই ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। প্রেমিকাকে জাগিয়ে কথা বলার সময় তার মা জেগে উঠলে সঙ্গে থাকা চাকু দিয়ে মায়ের শরীরে একাধিক আঘাত করে।

জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে গলা কেটে হত্যা করে সাগর। পরে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নিহতের মেয়েকে ধর্ষণ করে সে।

vod-21042020

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *