কক্সবাজারের রামুতে বন্দুক যুদ্ধে নিহত ১

কক্সবাজারের রামুতে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সঙ্গে কথিত  ‌‌বন্দুকযুদ্ধে মোহাম্মদ রশিদ ওরফে খোরশেদ (৩০) নামের  এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) গভীর রাতে উপজেলার জোয়ারিয়ানালার রাবারবাগান এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

 

নিহত খোরশেদ কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরের সি-২ ব্লকের বাসিন্দা মৃত নজির আহমদের ছেলে। গোয়েন্দা পুলিশের দাবি, তিনি  একজন ইয়াবা কারবারি ছিলেন।

ঘটনাস্থল থেকে ৩০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি দেশি বন্দুক ও একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে বলেও ডিবির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

 

জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের পরিদর্শক মানস বড়ুয়ার ভাষ্য মতে, রামু রাবার বাগান এলাকায় গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল অস্থায়ী চেকপোস্ট বসায়। এ সময় সন্দেহ হলে একটি মোটরসাইকেলকে থামানোর সঙ্কেত দেওয়া হয়। কিন্তু সঙ্কেত অমান্য করে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থল থেকে ইয়াবা, অস্ত্র এবং একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়া জব্দ করা হয় পাচারকারীদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি।

 

মানস বড়ুয়া বলেন, নিহত খোরশেদ একজন রোহিঙ্গা ইয়াবা কারবারি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রামু থানার মাধ্যমে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় রামু থানায় অস্ত্র, মাদক ও পুলিশের ওপর হামলার পৃথক মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও ডিবির ওই কর্মকর্তা জানান।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *