বিক্ষোবের দ্বিতীয় দিনে লেবাননে চলছে ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ

লেবাননে অর্থনৈতিক অব্যবস্থার প্রতিবাদে চলমান বিক্ষোভের দ্বিতীয় দিনে বুধবার রাতে ভাংচুর ও পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে বেশ কিছু ব্যাংক।

রাস্তায় বিক্ষোভ দেখিয়েছেন হাজারো জনতা। নিরাপত্তা বাহিনী আটক করেছে এদের বেশ ক’জনকে।

মঙ্গলবার রাতে বিক্ষোভে ফুয়াজ আল সেমান নামে এক বিক্ষোভকারীর মৃত্যুর পর পরিস্থিতি আরো জটিল আকার ধারণ করে। দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম ও উত্তরাঞ্চলীয় শহর ত্রিপোলিতে বড় ধরনের ও সহিংসতাপূর্ণ বিক্ষোভ হয়।

ছাব্বিশ বছর বয়সী ফুয়াজের বোন বলেন, লেবানন সেনাবাহিনী তার ভাইকে গুলি করেছে। তবে দেশটির সেনাবাহিনী সরাসরি এর দায় না নিয়ে এ জন্য ‘অনুশোচনা’ করেছে এবং জানিয়েছে এ ব্যাপারে তদন্ত করা হচ্ছে।

ফুয়াজের দাফনের পর বিক্ষোভকারীরা মঙ্গলবার বিকাল থেকেই ব্যাংকগুলোতে আগুন দিতে থাকে। এবং বিক্ষোভ অব্যাহত রাখে।

 

দক্ষিণ সিডনে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একটি শাখায় অর্ধডজনের মতো পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করা হয়। বৈরুত ও দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর নাবাতিহেও ব্যাংকগুলোতে আগুন দেয়া হয়।

লেবাননের মুদ্রা লেবানিজ পাউন্ডের মান কমে যাওয়ায় এ বিক্ষোভের সৃষ্টি। গত গ্রীষ্মের তুলনায় তা কমে গেছে প্রায় ৫০ শতাংশ।

গত অক্টোবরে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হলেও মার্চে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে তা স্থগিত হয়ে যায়। কিন্তু তা আবার ফেরত এলো অধিক মরিয়া হয়ে।

রাস্তায় নেমে এসেছে শিশু-কিশোর, নারীসহ হাজারো মানুষ। তাদের অনেকের হাতেই পাথর ও মলোতব ককটেল।

 

সূত্র : আলজাজিরা

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *