বগুড়ার ধুনটে পাহাড়ী পানি ও টানা বর্ষনে বন্যার আশংকা।

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা বর্ষণের কারণে যমুনা নদীর পানি বগুড়ার ধুনট উপজেলার ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নে শহড়াবাড়ি ঘাট পয়েন্টে বেড়েই চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৭৫ সেন্টিমিটার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে নদীর তীরবর্তি মানুষের মাঝে বন্যার আতংক দেখা দিয়েছে।

আজ সোমবার দুপরের দিকে বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) উপসহকারী প্রকৌশলী আসাদুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, যমুনা নদীর পানি দ্রুতগতিতে বাড়ছে। যেভাবে পানি বাড়ছে, তাতে বিপৎসীমা অতিক্রম করে বন্যা হতে পারে।

তিনি আরো জানান, বন্যায় বাঁধ ভেঙে জানমালের যাতে ক্ষতি না হয়, এ জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। প্রতিনিয়ত নদীতে সার্ভে করা হচ্ছে। কোথাও কোনো ত্রুটি পেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ জন্য পর্যাপ্ত জিও ব্যাগ ও  সিসি ব্লক প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে।

এদিকে পানি বৃদ্ধি পেয়ে ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নের বৈশাখী, রাধানগর, নিউসারিয়াকান্দি, শহড়াবাড়ি, পুকুরিয়া, কৈয়াগাড়ি, বরইতলী, বানিয়াজান ও শিমুলবাড়ি চরের আউশ ধান ও পাট ক্ষেতে পানি প্রবেশ করছে। যমুনা নদীর পূর্বতীরে চর এলাকার ফসলি জমিতেও একই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বাধ্য হয়ে চরের কৃষকেরা পানি মাড়িয়ে অপরিপক্ক কাঁচা পাট কাটতে শুরু করেছেন। কিন্ত আউশ ধান নিয়ে কৃষকেরা পড়েছেন মহাবিপাকে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *