আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীর ইন্তেকালে ইন্টারন্যাশনাল কাওমি কাউন্সিলের গভীর শোক প্রকাশ।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীর ইন্তেকালে ইন্টারন্যাশনাল কাওমি কাউন্সিলের গভীর শোক প্রকাশ। 

হেফাজতে ইসলাম ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মহাসচিব,জামিয়া মাদানীয়া বারিধারা মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা-পরিচালক ও শায়খুল হাদীস আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ইন্টারন্যাশনাল কাওমি কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানি।
আজ (১৪ই ডিসেম্বর) সোমবার এক শোকবার্তায় আইকিউসি চেয়ারম্যান মাও. রফিকুল ইসলাম মাদানি বলেন, আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রাহ.) দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় ও শীর্ষ একজন প্রবীণ আলেমেদ্বীন ছিলেন। ইসলামি আন্দোলনের ময়দানে তিনি ছিলেন একজন বীর সিপাহসালার। বাংলাদেশের জন্য তিনি ছিলেন রত্নতুল্য ৷ তার ইন্তেকালে বাংলার ইলমাকাশের একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র ঝরে পড়েছে ৷ দেশবাসী হারিয়েছে একজন নিবেদিতপ্রাণ মুখলিছ আলেমে দ্বীন ৷ আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রাহ.)এর ইন্তেকালে আমি গভীরভাবে শোকাহত ও ব্যাথিত।
আইকিউসি চেয়ারম্যান বলেন, আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রাহ.) হক ও ন্যায়-নীতির ওপর অটল-অবিচল একজন নিষ্ঠাবান আলেম ছিলেন। দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ইসলাম বিরোধী যেকোনো কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে জোরালো প্রতিবাদ জানাতেন তিনি। হকের উপর ছিলেন দৃঢ় মজবুত। বাতিলের সাথে কখনো আপোষ করেননি তিনি। তাঁর ইন্তেকালে ইসলামি অঙ্গনে যে শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে তা কখনো আর পূরণ হবেনা। ইতিহাস তাঁর অমর কীর্তি চিরকাল স্মরণ রাখবে।
মাও.মাদানি বলেন, লোভ-লালসা ও ব্যক্তি স্বার্থের ঊর্ধ্বে থাকতেন আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী। আমরণ তিনি এখলাছ ও নিষ্ঠার সাথে দ্বীনের বহুমুখী খেদমতের আঞ্জাম দিয়েছেন। ইসলাম-মুসলমান, দেশ ও জাতির পক্ষে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রাহ.) বলিষ্ঠ নেতৃত্বের মাধ্যমে সাহসী ভূমিকা পালন করেছেন। ইসলামি আন্দোলন সংগ্রামে আল্লামা কাসেমী (রাহ.)এর বলিষ্ঠ নেতৃত্ব ও ত্যাগ তিতিক্ষা ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে। আল্লামা কাসেমী (রাহ.) আত্মশুদ্ধির ময়দানেও ছিলেন একজন হক্কানী পীর। ইলমের ময়দানে তিনি ছিলেন একজন বিজ্ঞ আলেমেদ্বীন। রাজনীতির ময়দানে তিনি ছিলেন একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদ।
মাও. মাদানি আরো বলেন, আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রাহ.)এর সাথে আমার গভীর হৃদ্যতা ছিলো। তিনি আমাকে খুব বেশি মুহাব্বত করতেন এবং আমিও তাঁকে মুহাব্বত ও সম্মান করতাম। আল্লামা কাসেমী (রাহ.)এর দাওয়াতে তাঁর প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত জামিয়া মাদানিয়া বারিধারায় ও জামেয়া সুবহানিয়ায় বহুবার গিয়েছি, এবং তিনি মদিনায় আসলেই আমার বাসায় মেহমান হতেন, অনেক হ্রদ্রতার সাথে বহুদিন কাটিয়েছি, এমন সৌহার্দ পূর্ণ আচরণের মানুষ হারিয়ে খুবই মর্মাহত হয়েছি। বর্তমান এই নাজুক পরিস্থিতিতে দেশ ও জাতীর এই সংকটময় মুহূর্তে হেফাজত মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রাহ.)এর মতো হক ও ন্যায়নীতির উপর অটল-অবিচল, নিষ্ঠাবান আলেম আমাদের জন্য খুবই প্রয়োজন ছিলো। কিন্তু আল্লাহ তায়া’লার হুকুমে আমাদেরকে কাঁদিয়ে তিনি চলে গেলেন রফিকে আলার দরবারে ।
আইকিউসি চেয়ারম্যান মাও. রফিকুল ইসলাম মাদানি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, মহান প্রভুর দরবারে আমি দুআ করি, আল্লাহ তাআলা যেন তাঁর সকল দ্বীনি খেদমতকে কবুল করেন। তাঁর প্রতিষ্ঠিত মাদরাসা জামেয়া বারিধারা ও জামেয়া সুবহানিয়াকে আল্লাহ তায়ালা কিয়ামত পর্যন্ত কায়েম রাখেন এবং ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করে তাঁকে জান্নাতুল ফিরদাউস দান করেন, আমিন।
বার্তা প্রেরক-
মাও. আজিজুল্লাহ
যুগ্ন মহাসচিব
ইন্টারন্যাশনাল কাওমি কাউন্সিল
সদর দপ্তর, দোহা,কাতার
ই-মেইল-
internationalqc2020@gmail.com

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *