শিক্ষা সফরের বাস দুর্ঘটনায় উইলস শিক্ষিকার হাত বিচ্ছিন্ন, আহত ১৪

গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক শিক্ষিকার হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এছাড়া এ দুর্ঘটনায় ১৪ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে সদর উপজেলার পাথালিয়া নামক স্থানে শিক্ষা সফরের বাসটি সড়কে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের পেছনে সজোরে ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হাত বিচ্ছিন্ন হওয়া শিক্ষিকার নাম সৈয়দা ফাহিমা বেগম (৫০)। ওই শিক্ষিকাসহ ১০ শিক্ষার্থীকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত শিক্ষার্থীরা জানান, মঙ্গলবার সকালে তারা ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে যাচ্ছিলেন। চারটি মিনিবাস ও দুটি মাইক্রোবাসে মোট ১২৫ জন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারী ছিলেন। বেলা ১টার দিকে একটি বাস গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার পাথালিয়া এলাকায় দুর্ঘটনায় পড়ে।

দুর্ঘটনার কবলে পড়া বাসটিতে শিক্ষিকা ফাহিমাসহ ৩১ জন শিক্ষার্থী ছিলেন। তাদের বাসটি পাথালিয়া পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি দ্রুতগামী গাড়িকে সাইড দিতে গিয়ে সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের পেছনে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে শিক্ষিকা ফাহিমার একটি হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এছাড়া শিক্ষার্থী আব্দুল রহমান, আবু নাফিম চৌধুরী, শয়নসহ ১৫ জন আহত হন।

গোপালগঞ্জ সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম জানান, শিক্ষা সফরের বাস সড়কে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের পেছনে ধাক্কা দিলে শিক্ষিকাসহ ১৫ শিক্ষার্থী আহত হন।

গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. অসিত কুমার মল্লিক জানান, ওই শিক্ষিকাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হেলিকপ্টারে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। আহত ৯ শিক্ষার্থী এখানে ভর্তি রয়েছে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *