করোনায় আক্রান্ত অস্ট্রেলিয়ান তারকা পেসার

সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আজ (শুক্রবার) নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের তারকা পেসার কেন রিচার্ডসনের। কিন্তু হঠাৎ করেই গলা ব্যথা দেখা দিলে করোনা সন্দেহে তাকে কোয়ারেন্টাইনে রাখার সিদ্ধান্তই নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আজ তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। দর্শকশূন্য গ্যালারিতে রুদ্ধদ্বার অবস্থায় হচ্ছে ম্যাচটি। করোনায় আক্রান্ত নিশ্চিতভাবেই এ ম্যাচের একাদশে থাকতেন কেন রিচার্ডসন।

তবে বৃহস্পতিবার হালকা গলা ব্যথা অনুভূত হওয়ায় তার ব্যাপারে কোনো ঝুঁকি নিতে চায়নি সিএ। অস্ট্রেলিয়ার মেডিক্যাল টিমের কাছে গলা ব্যথা জানানোর সঙ্গে সঙ্গেই তাকে পাঠানো হয়েছে কোভিড-১৯ ভাইরাস পরীক্ষার জন্য। আজই পাওয়া যাবে পরীক্ষার রিপোর্ট। তার আগে প্রথম ম্যাচের স্কোয়াড থেকে তাকে আলাদা করে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

চলতি সপ্তাহেই জাতীয় দলের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে ফিরেছেন রিচার্ডসন। এখন গলা ব্যথার কারণেই তাকে কোয়ারেন্টাইনড করা হয়েছে। পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসলে তিনি আবার যোগ দেবেন দলের সঙ্গে। আর দূর্ভাগ্যবশত যদি পজিটিভ হয় পরীক্ষার রিপোর্ট, তাহলে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হবে অস্ট্রেলিয়ার সকল ক্রিকেটারকেই।

আপাতত রিচার্ডসনের ব্যাকআপ হিসেবে শন অ্যাবটকে স্কোয়াডের সঙ্গে যুক্ত করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। জানা গিয়েছে, শারীরিকভাবে এখন বেশ ভালো অনুভব করছেন রিচার্ডসন এবং তার ব্যাপারে অস্ট্রেলিয়া দলে শঙ্কাও নেই কোনো।

এদিকে করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ পুরোটাই দর্শকশূন্য গ্যালারিতে রুদ্ধদ্বার অবস্থায় খেলবে অসিরা।

শুধু তাই নয়, চলতি মাসের শেষদিকে হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি সিরিজ এখন পড়ে গেছে অনিশ্চয়তায়। তবে ওয়ানডে সিরিজের সবগুলো ম্যাচ সরাসরি টেলিভিশনে দেখা যাবে। টি-টোয়েন্টি সিরিজের ব্যাপারে এখনই সিদ্ধান্ত নেয়নি সিএ। সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনা ভবিষ্যৎ সিরিজগুলোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছে বোর্ড।

ওয়ানডে সিরিজটি রুদ্ধদ্বারে করার সিদ্ধান্ত নেয়ার কয়েক ঘণ্টা আগেই অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বাতিল করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। এ সফর পরে আদৌ হবে কি না সে ব্যাপারেও কিছু জানানো হয়নি।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ: আ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভেন স্মিথ, মারনাস লাবুসানে, ডেভিড আর্চি শর্ট, মিশেল মার্শ, অ্যালেক্স ক্যারি, প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, অ্যাডাম জাম্পা, জস হ্যাজেলউড।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকোলাস, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), রস টেলর, টম ল্যাথাম, জেমি নিশাম, কলিন ডি গ্রান্ডহোম, মিচেল স্যান্টানার, ইশ সোধী, লুকি ফার্গুসন, টেন্ট বোল্ট।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *