করোনা আতঙ্ক মিলিয়ে দিল ভারত-পাকিস্তানকে, মোদির ডাকে সাড়া দিলেন ইমরান

একটা মারণ ভাইরাস মিলিয়ে দিল দুই শত্রু দেশকে। অবশেষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রস্তাবে সাড়া দিল পাকিস্তান। নোভেল করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে দক্ষিণ এশিয়ার সার্ক গোষ্ঠীভুক্ত সকল দেশগুলোকে একসঙ্গে লড়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার এই আবেদন জানিয়ে সমস্ত রাষ্ট্রপ্রধানদের একত্রে বিষয়টি নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছিলেন তিনি। সকলেই এই প্রস্তাবে রাজি হয়েছিল, বাকি ছিল কেবল পাকিস্তান। শনিবার ইসলামাবাদের পক্ষ থেকেও জানিয়ে দেওয়া হয়, পাকিস্তান এই ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেবে।

ইতিমধ্যেই কোভিড ১৯-কে আন্তর্জাতিক মহামারী হিসেবে ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। যার পর থেকে অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে সমস্ত দেশে। ভারতেও এর প্রত্যক্ষ প্রভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই ৮৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন, দু’জন প্রাণ হারিয়েছেন। নড়েচড়ে বসেছে সরকার। তারপরই মোদি জানান, প্যানডেমিক নোভেল করোনভাইরাসের সংক্রমণ আটকাতে সার্ক অন্তর্ভুক্ত দেশগুলোকে একসঙ্গে ব্যবস্থা নিতে হবে। সেই উদ্দেশ্যে এই সব দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের ভিডিও কনফারেন্স করার প্রস্তাব দিয়ে শুক্রবার টুইট করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

অন্যান্য দেশগুলোর পক্ষ থেকে সাড়া দেওয়া হলেও পাকিস্তান ছিল নিরুত্তাপ। সেই ইমরান খানের দেশও পরে টুইট করে মোদির আবেদনে সাড়া দিলেন। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র টুইট করে বলেন, করোনাভাইরাসের আতঙ্ক যেভাবে ছড়িয়ে পড়েছে, তাতে আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক স্তরে একসঙ্গে কাজ করা প্রয়োজন। প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্য বিষয়ক বিশেষ সহযোগী এই ভিডিও কনফারেন্সে অংশ গ্রহণ করবে।’ অন্যদিকে নরেন্দ্র মোদির আবেদনে ইতিমধ্যেই সাড়া দিয়েছে নেপাল, ভুটান, বাংলাদেশ, মালদ্বীপ, আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। এসব দেশের রাষ্ট্রপ্রধান বা তাদের মুখপাত্ররা মোদিকে তাদের সমর্থনের কথা জানান।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *